ভবিষ্যৎ-উদ্যোক্তা-তৈরির

ভবিষ্যৎ উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে স্টার্টআপ অ্যাক্সেলারেটরের উদ্বোধন

২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ টি পণ্য এবং সেবা সৃষ্টির লক্ষ্যে স্টার্টআপদের জন্য প্রথম অ্যাক্সেলারেটর উদ্বোধন করেন ‘আর্কিটেক্ট অব ডিজিটাল বাংলাদেশ’ ও বাংলাদেশ সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়৷

২৬ জুলাই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে নির্ধারিত মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণের প্রাক্কালে বাংলাদেশের প্রথম সরকারি স্টার্টআপ অ্যাক্সেলারেটর (Startup এক্সেলারেটর) সহ ২ টি বিশেষায়িত ল্যাবের উদ্বোধনও করেন তিনি।

Innovation Design Entrepreneurship Academy (IDEA) প্রকল্পের আওতায় আগারগাঁওয়ে আইসিটি টাওয়ারে মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব ভবনে আন্তর্জাতিক মানের অত্যাধুনিক এই অ্যাক্সেলারেটর স্থাপন করা হয়েছে।

একই দিনে, বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমান সফটওয়্যার শিল্পের চাহিদা বিবেচনা করে Software Testing and Certification Lab এবং সাইবার ঝুঁকি মোকাবেলায় সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে Computer Incident Response Team (BD CIRT) এর আরও একটি বিশেষায়িত ল্যাব এর উদ্বোধনও করা হয় ।

উদ্বোধনকালে জয় বলেন, “আগে আমাদের সরকারি বা বেসরকারি সফটওয়্যার বাইরে থেকে টেস্ট করে আনতে হতো। কিন্তু এটা আমরা বাংলাদেশ থেকেই এখন করে দিতে পারি আমাদের আইসিটি মন্ত্রণালয় থেকেই। সেই ল্যাব আমাদের আছে এবং সার্টিফিকেশন অঅথরিটি আছে”।

তিনি আরো বলেন, “এই সিস্টেম যদি আমাদের দেশে আরো কয়েকবছর আগে থাকতো, বাংলাদেশ ব্যাংকের হ্যাকিং আমরা ধরে ফেলতে পারতাম। এই সিস্টেম আমাদের আগে ছিল না, এখন আছে। ”

তাছাড়া, বিশ্বের সাইবার সংঘটিত অপরাধ ও অপরাধী সনাক্ত করণের সক্ষমতা বাড়াবে এই ডিজিটাল ফরেনসিক ল্যাব।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে টেলিযোগাযোগ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, আইসিটি ডিভিশনের স্টার্টআপ বাংলাদেশের ইনভেস্টমেন্ট অ্যাডভাইজার টিনা জাবিনসহ উপস্থিত ছিলেন আরো অনেকে।